লাভ জিহাদে পড়ে আরো এক হিন্দু যুবতী হারালো প্রাণ! নিজেকে রাজু দাস হিসেবে পরিচয় দিয়েছিল ফইজ্জুল মোল্লা।

পশ্চিমবঙ্গে আরো এক হিন্দু যুবতী লাভ জিহাদের শিকার হয়েছে। প্রিয়াঙ্কা নামের এক যুবতী লাভ জিহাদের শিকার হয়ে নিজেকে শেষ করে দিয়েছে। ফইজ্জুল মোল্লা নামক এক জিহাদীর নজর হিন্দু যুবতী প্রিয়াঙ্কার উপর পড়েছিল। প্রিয়াঙ্কাকে ফাঁসানোর জন্য ফইজ্জুল মোল্লা নিজেকে রাজু দাস হিসেবে প্রিয়াঙ্কার কাছে পরিচয় দিয়েছিল। মিষ্টি মিষ্টি কথা বলে ফইজ্জুল মোল্লা প্রিয়াঙ্কাকে নিজের ষড়যন্ত্রে ফাঁসিয়ে নেয় এবং নিকাহ করার পরিকল্পনা করে ফেলে।

কিন্ত কোনোভাবে প্রিয়াঙ্কা ফইজ্জুল মোল্লার আসল পরিচয় জেনে যায়। প্রিয়াঙ্কা জানতে পারে, সে যার সাথে প্রেম করছে তার আসল নাম ফইজ্জুল মোল্লা। সবকিছু জানা মাত্র প্রিয়াঙ্কা ফইজ্জুল মোল্লার সাথে সম্পর্ক ভেঙে দেয়। কিন্তু জিহাদী ফইজ্জুল মোল্লা লাগাতার প্রিয়াঙ্কাকে হুমকি দিতে থাকে। এরপর প্রিয়াঙ্কা অন্য যুবককে বিয়ে করার সিধান্ত নেয়। সেখানে ফইজ্জুল মোল্লা পিস্তল নিয়ে পৌঁছে যায়। কোনোভাবে প্রিয়াঙ্কার পরিবারের লোকজন ব্যাপারটা হ্যান্ডেল করে।

প্রিয়াঙ্কার পরিবার পুলিশকে খবর দেয়। কিন্তু পুলিশ ঘটনা নিয়ে জিহাদী ফইজ্জুল মোল্লার বিরুদ্ধে কোনো একশন নেয়নি। এরপর অপমানে প্রিয়াঙ্কা আত্মহত্যা করে। ঘটনাটি পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার। বুধবার দিন রামচন্দ্রপুর গ্রামে প্রিয়াঙ্কার বিয়ে হয়। ফইজ্জুল মোল্লা লাগাতার প্রিয়াঙ্কাকে হুমকি দিত তথা ব্ল্যাক মেইল করতো।অপমানে শনিবার দিন প্রিয়াঙ্কা আত্মহত্যা করে।

Source/ Credit: indiarag